সমাজসেবা অধিদপ্তরের পরীক্ষা ২১ অক্টোবর, থাকছে যেসব নির্দেশনা

সমাজসেবা অধিদপ্তরের পরীক্ষা ২১ অক্টোবর, থাকছে যেসব নির্দেশনা

সমাজসেবা অধিদপ্তরের ইউনিয়ন সমাজকর্মী (তৃতীয় শ্রেণির স্থায়ী রাজস্ব) পদে লিখিত পরীক্ষার (এমসিকিউ) তারিখ ঘোষণা কর হয়েছে। আগামী ২১ অক্টোবর দেশের ৬৪ জেলায় একসঙ্গেই এ পরীক্ষা অনুষ্ঠিত হবে। তবে পরীক্ষার্থীদের জন্য বেশকিছু নির্দেশনা প্রকাশ করেছে সমাজসেবা অধিদপ্তর। চাকরির বিজ্ঞপ্তি প্রকাশের দীর্ঘ চার বছর পর অবশেষে পরীক্ষা অনুষ্ঠিত হতে যাচ্ছে। ২১ অক্টোবর (শুক্রবার) সকাল ১০টা থেকে সাড়ে ১১টা পর্যন্ত আবেদনকারীরা নিজ নিজ জেলায় পরীক্ষা দিতে পারবেন। এর আগে ২০১৯ ও ২০২১ সালে ইউনিয়ন সমাজকর্মী পদে পরীক্ষার তারিখ ঘোষণা করা হলেও শেষ মুহূর্তে অনিবার্য কারণবশতঃ এ পরীক্ষা স্থগিত করে সমাজসেবা অধিদপ্তর। সমাজকর্মী পদে চাকরির জন্য আবেদন করেছেন ৬ লাখ ৬২ হাজার ২৭০ জন। সে হিসেবে একটি পদের জন্য লড়বেন ১ হাজার ৪৩০ জন চাকরিপ্রার্থী। লিখিত পরীক্ষায় অংশ নেওয়ার জন্য প্রবেশপত্র ও জাতীয় পরিচয়পত্র অবশ্যই সঙ্গে আনতে হবে। পরীক্ষা শুরু হওয়ার ৩০ মিনিট আগে প্রার্থীকে নির্ধারিত আসন গ্রহণ করতে হবে। পরীক্ষা শেষ না হওয়া পর্যন্ত কক্ষ ত্যাগ করা যাবে না। পরীক্ষা শুরুর ১০ মিনিট আগে ওএমআর ফরম দেওয়া হবে। ওএমআর ফরমের নির্দিষ্ট বক্সে বাংলায় দুটি বাক্য ও ইংরেজিতে দুটি বাক্য লিখতে হবে। পরীক্ষা শুরুর পর থেকে ওএমআর ফরম জমা না দেওয়া পর্যন্ত কাউকে বাইরে যেতে দেওয়া হবে না। পরীক্ষার্থীকে পরীক্ষাকক্ষে অবশ্যই উভয় কান উন্মুক্ত রাখতে হবে। আবেদনপত্রে পরীক্ষার্থীর দেওয়া ছবি হাজিরা শিটে থাকবে। ইনভিজিলেটর এ ছবি দিয়ে পরীক্ষার্থীকে যাচাই করবেন। ভুয়া পরীক্ষার্থীর বিরুদ্ধে আইনি ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে। আবেদনপত্রে প্রার্থীর দেওয়া স্বাক্ষরের সঙ্গে পরীক্ষার হাজিরা শিট এবং ওএমআর শিটে স্বাক্ষরসহ সব তথ্য মিল থাকতে হবে। পরীক্ষার্থীকে উত্তরপত্রে অবশ্যই কালো বলপয়েন্ট কলম ব্যবহার করতে হবে। প্রশ্নপত্রের সেট কোড ব্যতীত অন্য সেট কোডে পরীক্ষা দিলে উত্তরপত্রটি বাতিল করা হবে। পরীক্ষাকেন্দ্রে কার আসন কোন রুমে, তার তালিকা টানিয়ে দেওয়া হবে। এক পরীক্ষার্থীর জায়গায় অন্য কোনো পরীক্ষার্থী পরীক্ষা দিলে তার পরীক্ষা বাতিল হবে। পরীক্ষাকেন্দ্রে কোনো বই, উত্তরপত্র, নোট বা অন্য কোনো কাগজপত্র, ক্যালকুলেটর, মুঠোফোন, ভ্যানিটি ব্যাগ, পার্স, হাতঘড়ি বা ঘড়িজাতীয় বস্তু, ইলেকট্রনিক হাতঘড়ি বা যেকোনো ধরনের ইলেকট্রনিক ডিভাইস, যোগাযোগযন্ত্র বা এ ধরেনর বস্তু সঙ্গে নিয়ে প্রবেশ করা যাবে না। যদি কোনো পরীক্ষার্থী এসব দ্রব্য সঙ্গে নিয়ে পরীক্ষাকেন্দ্রে প্রবেশ করেন, তাহলে তাকে তাৎক্ষণিক বহিষ্কারসহ তার বিরুদ্ধে আইনি ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

admin

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *