পিটিআই ইনস্ট্রাক্টর ও পরীক্ষণ বিদ্যালয়ের শিক্ষক নিয়োগপ্রক্রিয়া দ্রুত সম্পন্নের দাবি

পিটিআই ইনস্ট্রাক্টর ও পরীক্ষণ বিদ্যালয়ের শিক্ষক নিয়োগপ্রক্রিয়া দ্রুত সম্পন্নের দাবি

প্রাথমিক ও গণশিক্ষা মন্ত্রণালয়ের অধীন প্রাথমিক শিক্ষা অধিদপ্তরের প্রাইমারি টিচার্স ট্রেনিং ইনস্টিটিউটের (পিটিআই) সাধারণ ইনস্ট্রাক্টর পদে ও পরীক্ষণ বিদ্যালয়ের শিক্ষক পদে নিয়োগপ্রক্রিয়া দ্রুত সম্পন্নের দাবিতে মানববন্ধন করেছেন চাকরিপ্রার্থীরা।

আজ রোববার দুপুরে রাজধানীর মিরপুরে প্রাথমিক শিক্ষা অধিদপ্তরের সামনে কয়েক শ চাকরিপ্রার্থী মানববন্ধনে অংশ নেন। পিটিআইয়ের সাধারণ ইনস্ট্রাক্টর পদে নিয়োগপ্রক্রিয়া পাঁচ বছর ধরে আটকে আছে এবং পরীক্ষণ বিদ্যালয়ের শিক্ষক পদে নিয়োগপ্রক্রিয়া চার বছর ধরে আটকে আছে বলে জানান মানববন্ধনে অংশ নেওয়া প্রার্থীরা।

মানববন্ধনে অংশ নেওয়া কয়েকজন প্রার্থী বলেন, ‘পিটিআই ইনস্ট্রাক্টর ও পরীক্ষণ বিদ্যালয়ের শিক্ষক পদে যাঁরা আবেদন করেছিলেন, তাঁদের অনেকের সরকারি চাকরিতে আবেদনের বয়স শেষ হয়েছে। আমাদের মধ্যে অনেকে এই দুই চাকরির আশায় অন্য চাকরিতে আবেদন করেননি। কারণ, আমাদের মধ্যে অনেকে ইনস্ট্রাক্টর পদে লিখিত পরীক্ষায় উত্তীর্ণ হয়েছেন। আবার অনেকে পরীক্ষণ বিদ্যালয়ের শিক্ষক পদের বাছাই পরীক্ষায় উত্তীর্ণ হয়েছেন। দীর্ঘদিনেও নিয়োগপ্রক্রিয়া শেষ না হওয়ায় আমরা মানসিকভাবে ভেঙে পড়েছি। দুই পদের নিয়োগপ্রক্রিয়া দ্রুত শেষ করা হোক।’

ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থী এবং পিটিআই ইনস্ট্রাক্টর ও পরীক্ষণ বিদ্যালয়ের শিক্ষক পদে নিয়োগ পরীক্ষায় অংশ নেওয়া যদুপতি বর্মন বলেন, ‘বিভাগীয় প্রার্থী হিসেবে কোটা সুবিধা চেয়ে কয়েকজন শিক্ষকের মামলার কারণে দুই পদেই নিয়োগপ্রক্রিয়া আটকে আছে। যাঁরা মামলা করেছেন, তাঁরা প্রাথমিক শিক্ষা অধিদপ্তরের অধীনে চাকরি করেন। তাই অধিদপ্তর যদি তাঁদের ডেকে মামলা তুলে নিতে বলে, তাহলে আমার মতো কয়েক হাজার বেকারকে আর চাকরির জন্য পথে দাঁড়াতে হয় না।’

admin

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *